দাঁত ব্যথা কমানোর ৩ টি প্রাকৃতিক উপায়

দাঁত ব্যথা বা দাঁতের শিরশির একটি জটিল সমস্যা। দাঁতের ক্ষয়, সংক্রমণ বা পোকা দাঁতের ব্যথা, জয়েন্টে সমস্যা, দাঁতের মাড়ি ফোলা ও ব্যথা, আক্কেল দাঁতের ব্যথা ইত্যাদি বিভিন্ন কারণে দাঁত ব্যথা হয়। দাঁত ব্যথা হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়াটা শ্রেয়। সেই সাথে দাঁতের ব্যথা কমাতে কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি বা প্রাকৃতিক বেবহার করতে পারেন।

দাঁত ব্যথা কমানোর কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি জানিয়েছে স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট টপটেন হোম রেমেডি। এছাড়াও আদি চিকিৎসাতেও বেশ উপকারিতা দেখা গেছে। নিচে তিনটি চমৎকার পদ্ধতি তুলে ধরা হলো যেগুলোর উপকারিতা অসীম।

Reduce Toothache - দাঁত ব্যথা কমানোর প্রাকৃতিক উপায়

দাঁত ব্যথা কমানোর প্রাকৃতিক উপায়

১. গোলমরিচ ও লবণ

ব্যাকটেরিয়া দূর করতে লবণের উপকারিতা অপরিসীম। এছাড়াও লবণের আরও অনেক উপকারিতা আছে। আর যে কোনো ব্যথা দূর করতে গোলমরিচ অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। লবণ ও গোলমরিচের মিশিয়ে ব্যবহার করলে ব্যথা কমতে অনেকটা সাহায্য হয়। এ দুটির মধ্যেই আছে প্রদাহরোধী, ব্যাকটেরিয়ারোধী, ও অ্যানালজেসিক উপাদান।

কিভাবে তৈরী করবেন:- সমপরিমাণ লবণ ও গোলমরিচ নিন।এরপর কয়েক ফোঁটা পানি দিয়ে পেস্ট তৈরি করুন।
ব্যবহারের নিয়ম:- আক্রান্ত দাঁতে সরাসরি পেস্ট লাগান এবং কয়েক মিনিট রাখুন। কয়েক দিন নিয়মিত এটি ব্যবহার করুন।

২. রসুন

দাঁতের ব্যথা কমাতে রসুন একটি কার্যকরী মসলা। রসুনের মধ্যে আছে অ্যান্টিবায়োটিক; সেই সাথে রয়েছে এমন কিছু উপাদান, যা ব্যথা কমাতে কার্যকর। রসুনের উপকারিতা লিখতে গেলে কয়েক পৃষ্ঠা হয়ে যাবে। রসুন যেমন বিভিন্ন ধরণের রোগ দূর করতে সাহায্য করে তেমনি অনেক রোগের বিপক্ষে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বৃদ্ধি করে।

কিভাবে তৈরী করবেন:- কিছু পরিমান রসুনের গুঁড়া নিন অথবা কয়েকটি রসুনের কোয়া থেঁতলে নিন। এর মধ্যে সামান্য পরিমাণ লবণ মেশান।
ব্যবহারের নিয়ম:- আক্রান্ত দাঁতে সরাসরি মিশ্রণটি লাগিয়ে দিন। এতে ব্যথা কমবে পাশাপাশি কয়েকটি রসুনের কোয়া চিবাতে পারেন। কয়েক দিন এই পদ্ধতি ব্যবহার করুন। ইনশাআল্লাহ দাঁত ব্যথা কমে যাবে।

৩. লবণ ও গরম পানি

এখন যে পদ্ধতিটা শেয়ার করবো এটি অনেক সহজ যা আমি নিজেই অনেক বার ব্যবহার করেছি। এক গ্লাস গরম পানিতে আধা চা চামচ লবণ মেশান। এটি দিয়ে কুলি করুন, ফোলা ও প্রদাহ কমাতে কাজ করবে; ব্যাকটেরিয়ার সঙ্গে লড়াই করে ব্যথা কমাতে কাজে দেবে।

নোটঃ এই পদ্ধতিগুলো হচ্ছে প্রাথমিক চিকিৎসা। অতিরিক্ত ব্যথা হলে একজন ডাক্তারের কাছ থেকে পরামর্শ নিবেন।

দাঁত একটি আল্লাহর অশেষ নিয়ামত। কথায় বলে, দাঁত থাকতে দাঁতের মর্ম বোঝে না কেউ। এই প্রবাদটা যে কতটা সত্যি, তা লুকিয়ে রয়েছে আমাদের শরীর-স্বাস্থ্যেই। যার দাঁতে সমস্যা হয়েছে সেই বুজতে পারে দাঁতের কতটা গুরুত্ব। আমাদের সকলের দাঁতের প্রতি যত্নশীল হওয়া উচিত। পোস্টি ভালো লাগলে আপনার আপনজন ও বন্দুদের সাথে শেয়ার করবেন। পোস্টি নিয়ে কোনো মতামত থাকলে নিচে কমেন্ট করতে পারেন। ধন্যবাদ !!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *